রবিবার, ১৬ মে ২০২১, ১১:১৬ পূর্বাহ্ন

ওমানি জিপসামের তৃতীয় মার্কেট বাংলাদেশ

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ
    প্রকাশিত: মঙ্গলবার, ৯ ফেব্রুয়ারী, ২০২১
ওমানি জিপসামের তৃতীয় মার্কেট বাংলাদেশ

বিশ্বজুড়ে সিমেন্ট বাজারজাতকরণ ও বোর্ড তৈরির মূল কাঁচামাল জিপসাম উৎপাদনকারী দেশ হিসেবে ওমানের বেশ সুনাম রয়েছে। করোনা মহামারিতে লকডাউনসহ বিভিন্ন কারণে বিশ্বের পণ্য রপ্তানি বাজারে অর্থনৈতিক মন্দা থাকলেও আমদানি রপ্তানিতে নিজেদের শক্ত অবস্থান ধরে রাখতে পেরেছে ওমানের জিপসাম।

বিশ্বে ওমানি জিপসামের তৃতীয় মার্কেট হিসেবে বাংলাদেশের নাম উঠে এসেছে। সম্প্রতি ওমান অবজারভারের এক প্রতিবেদনে দেখা যায়, বর্তমানে ওমানের সবচেয়ে বড় জিপসাম বাজার হচ্ছে ভিয়েতনাম, এরপরেই রয়েছে ভারত এবং তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে বাংলাদেশ।

 

গত বছর মোট বার্ষিক উৎপাদন ছিলো ৮.৮১ মিলিয়ন মেট্রিক টন। ২০১৯ সালে এই উৎপাদনের পরিমাণ ছিলো ৯.০১ মিলিয়ন মেট্রিক টন। ওমানি জিপসামের পরিচালক রামচন্দ্র জানিয়েছেন, “গতবছর অর্থনৈতিক মন্দা ও মহামারীসহ বিভিন্ন সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়েছে আমাদের।

কিন্তু সরকারের সঠিক প্রচেষ্টায় জিপসাম রপ্তানি বাজারে নিজেদের শক্ত অবস্থান ধরে রাখতে পেরেছে। দেশের দশম পঞ্চবার্ষিকী উন্নয়ন পরিকল্পনা (২০২১-২০২৫) অনুযায়ী, জিপসাম কোম্পানি দেশের জিডিপির ০.৫০ শতাংশ অবদান রাখছে। অন্যান্য খাতের তুলনায় এই খাতে ওমানি নাগরিকদের বিনিয়োগ ও কর্মসংস্থানের সুযোগ বেশি। তাই এই খাতের প্রতি সরকারকে আরো বেশি গুরুত্ব দেওয়া উচিত।”

আরো পড়ুনঃ

কাতারে ফের চোখ রাঙাচ্ছে করোনা

নাযুক অবস্থায় ওমানের বাংলাদেশ স্কুল মাস্কাট

ওমানে আক্রান্ত উদ্বেগ ও ভীতি সৃষ্টি করছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

মুসল্লিদের জুতা সাজিয়ে রেখেই প্রশান্তি পান এক অমুসলিম!

ওমানে সম্পূর্ণ চালু অবস্থায় বিক্রি হবে একটি সুপার মার্কেট

হস্তান্তরের আগেই প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া ঘরে ফাটল

 

তিনি আরো বলেন, ‘‘কোম্পানি ভিয়েতনামে সবচেয়ে বেশি কাঁচামাল রপ্তানি করেছে। ভিয়েতনামে মোট ২.৯৯ মিলিয়ন মেট্রিক টন পণ্য রপ্তানি করেছে জিপসাম। এরপরেই রয়েছে ভারত। দেশটিতে মোট রপ্তানি করেছে ১.৪৯ মিলিয়ন মেট্রিক টন।

বাংলাদেশে ১.৪৪ মিলিয়ন মেট্রিক টন, ইন্দোনেশিয়ায় ০.৮ মেট্রিক টন, জাপানে ০.৭৮০ মেট্রিক টন, দক্ষিণ পূর্ব আফ্রিকায় ০.৪৯ মিলিয়ন মেট্রিক টন, দক্ষিণ কোরিয়ায় ০.৩৭ মেট্রিক টন।

এছাড়াও ফিলিপাইন, তাইওয়ান, শ্রীলঙ্কা এবং জিসিসির দেশগুলিও ছোট পরিমাণে নিজেদের পণ্য রপ্তানি করে। তিনি বলেন, আশা করা যাচ্ছে অতিদ্রুত আমরা বিশ্বের আমদানি রপ্তানি বাজারে আমাদের অবস্থান আরো ভালো পর্যায়ে নিয়ে যেতে পারবো।

 

আরো দেখুনঃ

প্রবাস টাইম সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ।
রিলেটেড নিউজ
© 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | এই ওয়েবসাইটের লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি
Technical Support By NooR IT