রবিবার, ১৬ মে ২০২১, ১২:০২ অপরাহ্ন

ওমানে বেড়েই চলছে করোনায় আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা

ওমান প্রতিনিধিঃ
    প্রকাশিত: রবিবার, ২৫ এপ্রিল, ২০২১
ওমানে আজ করোনার ব্যাপক উন্নতি

করেনার নতুন ঢেউয়ে বিপর্যস্ত গোটা ওমান। প্রতিদিন লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে আক্রান্ত এবং মৃতের সংখ্যা। করোনার লাগাম টানতে হিমশিম খাচ্ছে দেশটির স্থানীয় প্রশাসন। রবিবার (২৫-এপ্রিল) ওমান স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের দেওয়া তথ্য অনুসারে দেশটিতে গত ৩ দিনে নতুন আক্রান্তের সংখ্যা ৩ হাজার ৫৩৮ জন এবং মৃতের সংখ্যা ৩৫ জন। গত রবিবারের তুলনায় আজ আক্রান্ত বেড়েছে ১৭৫ জন। দেশটির বর্তমান করোনা পরিস্থিতি ভয়াবহ বিপদ সংকেতের ইঙ্গিত দিচ্ছে বলে মনে করছেন স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা।

 

বর্তমানে আইসিইউতে ভর্তি রোগীর সংখ্যা ২৭৩ জন। দেশটিতে আক্রান্ত, মৃত এবং আইসিইউতে ভর্তি রোগীর সংখ্যা উদ্বেগজনকহারে বাড়ছে। এখন পর্যন্ত মোট আক্রান্তের সংখ্যা ১ লাখ ৮৮ হাজার ৮১৬ জন। অপরদিকে মোট সুস্থের সংখ্যা ১ লাখ ৬৮ হাজার ৭৭০ জন। নতুন ৩৫ জনের মৃত সহ মোট মৃতের সংখ্যা ১ হাজার ৯৭৭ জন। গত ৩ দিনে নতুন সুস্থের সংখ্যা ৩ হাজার ৭১৯ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটির বিভিন্ন হাসপাতালে নতুন ভর্তি রোগীর সংখ্যা ৯৫ জন। এখন পর্যন্ত দেশটির বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আছেন ৮১৩ জন। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নিতে ওমান সরকারের সকল নির্দেশনা মেনে চলতে নাগরিক এবং প্রবাসীদের অনুরোধ জানিয়েছে ওমান স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। অন্যথায় আইন অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়ার হুশিয়ারি দিয়েছে ওমান সুপ্রিম কমিটি।

এদিকে ভারতে লাগামহীনভাবে করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধি পাওয়ায় দেশটির সরকার ও স্বাস্থ্যকর্মীদের জন্য দ্রুত সহায়তার পরিকল্পনা করেছে যুক্তরাষ্ট্র, সৌদি আরব এবং পাকিস্তান। রোববার (২৫ এপ্রিল) মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিনকেন এক টুইট বার্তায় বলেন, ভারতে করোনার এই ভয়াবহ পরিস্থিতিতে আমরা তাদের পাশে দাঁড়াচ্ছি। ভারতীয় সরকারের সঙ্গে একযোগে কাজ করার দিকে এগোচ্ছি। ভারতের স্বাস্থ্য পরিষেবার সঙ্গে যুক্ত সকলের জন্য আমরা ক্রমাগত বাড়তি সাহায্য দিয়ে যাব।

অন্যদিকে, টিকার তৈরির কাঁচামাল রফতানিতে নিষেধাজ্ঞার বিষয়ে ওয়াশিংটনে ভারতীয় দূতাবাসের এক মুখপাত্র বলেন, দুই দেশের কর্মকর্তাদের মধ্যে বিভিন্ন পর্যায়ে আলোচনা চলছে, যাতে ভারতে কোভিড-১৯ টিকা উৎপাদনের জন্য যুক্তরাষ্ট্রের কোম্পানিগুলো থেকে অন্তত কিছু পরিমাণে কাঁচামাল ও উপকরণ সরবরাহ করা যায়। চিকিৎসা সরঞ্জাম সরবরাহের পথে প্রতিবন্ধকতা চিহ্নিত করে সেগুলো দূর করার জন্য একত্রে কাজ করা গুরুত্বপূর্ণ বলে আমরা বিশ্বাস করি। চলমান টিকাদান কর্মসূচি ও বৈশ্বিক মহামারী মোকাবেলায়ও একসঙ্গে কাজ করার বিকল্প নেই বলেই আমাদের বিশ্বাস।

 

প্রসঙ্গত, আক্রান্তে দ্বিতীয় ও মৃত্যুতে তৃতীয় অবস্থানে থাকা ভারতে রোববার সকাল পর্যন্ত পূর্ববর্তী ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত হয়েছেন রেকর্ড সাড়ে তিন লাখ। আর মারা গেছেন ২ হাজার ৭ শতাধিক মানুষ। দেশটির কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, রোববার দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা ৩ লাখ ৪৯ হাজার ৬৯১, যা এ যাবৎ সর্বাধিক। এ পর্যন্ত দেশে করোনায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা ১ কোটি ৬৯ লাখ ৬০ হাজার ১৭২ জন।

ভারতের স্বাস্থ্য ব্যবস্থা সম্পূর্ণ ভেঙে পড়ার আশঙ্কা করা হচ্ছে। দেশটির বিভিন্ন প্রান্তে সৃষ্টি হয়েছে অক্সিজেনের চরম সংকট। জ্বালানো হচ্ছে গণচিতা। জায়গা মিলছে না হাসপাতালের মর্গে। এমতবস্থায় দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বলেছেন, ‘ধৈর্যের পরীক্ষা চলছে’।

 

আরো দেখুনঃ

প্রবাস টাইম সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ।
রিলেটেড নিউজ
© 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | এই ওয়েবসাইটের লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি
Technical Support By NooR IT