বুধবার, ১৬ জুন ২০২১, ০৪:৫৩ অপরাহ্ন

ফিলিস্তিনের পাশে থাকার ঘোষণা দিলো মালয়েশিয়া

শাহাদাত হোসেন,মালয়েশিয়া প্রতিনিধি
    প্রকাশিত: শনিবার, ১৫ মে, ২০২১
ফিলিস্তিনের পাশে থাকার ঘোষণা দিলো মালয়েশিয়া
মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী মুহিদ্দিন ইয়াসিন

দখলদার ইসরায়েল সরকার কর্তৃক নিপীড়িত ফিলিস্তিনের জনগণের পাশে থাকার ঘোষণা দিলো মালয়েশিয়া। দ্বিপক্ষীয় সম্পর্কের পাশাপাশি সহায়তাও অব্যাহত রাখবে দেশটি। শনিবার (১৫ মে) এক বিশেষ বার্তায় মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী তান শ্রী মুহিদ্দিন ইয়াসিন ইসরায়েলের নির্যাতন থেকে ফিলিস্তিনিদের রক্ষায় কঠোর অবস্থান গ্রহণেরও আহ্বান জানিয়েছেন।

মুহিদ্দিন বলেছেন, পররাষ্ট্র বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের তত্ত্বাবধানে প্যালেস্টাইনের জনগণের জন্য হিউম্যানিস্টিস্ট ট্রাস্ট ফান্ডের (একেএআরপি) মাধ্যমে মালয়েশিয়া গত বছর আল-আকসা মসজিদে ১০ হাজার ডলার সহায়তা প্রদান করেছে। এছাড়াও গত বছরের ১০ মে জর্ডানে একটি বিশেষ চার্টার্ড বিমানের মাধ্যমে মালয়েশিয়ার সরকার এক মিলিয়ন ফেস মাস্ক, ৫০০ ফেস শিল্ড এবং ৫ লাখ রাবার গ্লাভসসহ চিকিৎসা সরঞ্জাম ফিলিস্তিনিদের সহায়তায় পাঠিয়েছে। যা আগামীতেও অব্যাহত থাকবে।

 

বঙ্গবন্ধু কুইজ প্রতিযোগিতায় সর্বোচ্চ সঠিক উত্তরদাতা একশত জনের তালিকা দেখুন এই লিংকে
https://www.probashtime.net/quiz/

 

এদিকে ইসরায়েলের আগ্রাসনের বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ নিতে আগামীকাল রোববার (১৬ মে) জরুরি ভার্চুয়াল বৈঠকে বসবে ওআইসি। বৈঠকে মালয়েশিয়ার প্রতিনিধিত্ব করবেন বিদেশমন্ত্রী দাতুক সেরি হিশামুদ্দিন তুন হুসেইন। হিশামুদ্দিন বলেন, ইসরায়েলি আগ্রাসনের বিরুদ্ধে মালয়েশিয়া ফিলিস্তিনের জনগণের পাশে থাকবে।

ফিলিস্তিন সম্পর্কে দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার মুসলিম দেশগুলোর মধ্যে ঐক্যমত্যে পৌঁছানোর জন্য ব্রুনাইয়ের পররাষ্ট্র বিষয়ক মন্ত্রী দাতুক সেরি সেতিয়া হাজী ইরানওয়ান মোহাম্মদ ইউসুফ এবং ইন্দোনেশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী রেটনো মার্সুডির সঙ্গে যোগাযোগ করা হচ্ছে। সম্মিলিতভাবে আমরা ফিলিস্তিনে ইসরায়েলি হামলার তীব্র নিন্দা জানাই এবং এ হামলা বন্ধের আহ্বান জানাই।

 

উল্লেখ্য: সম্প্রতি পবিত্র রমজান মাসের পশ্চিম তীরের বিভিন্ন শহরে বিশেষ করে জেরুজালেমের আল-আকসা মসজিদে ন্যক্কারজনক হামলা এবং ফিলিস্তিনিদের ওপর ব্যাপক দমন অভিযান চালায় ইসরায়েলি সেনারা। এ ঘটনার প্রতিবাদে সোমবার (১০ মে) তেল আবিবকে চূড়ান্ত সময়সীমা বেঁধে দেয় হামাস।

সংগঠনটির বেঁধে দেওয়া সময়সীমার মধ্যে দমন অভিযান বন্ধ না হলে গাজা উপত্যকা থেকে ইসরায়েল অভিমুখে এ যাবৎকালের মধ্যে সবচেয়ে ভয়াবহ রকেট হামলা চালানো হয়। ইসরায়েলের গণমাধ্যমগুলোতে প্রকাশিত খবর অনুযায়ী, ফিলিস্তিনি প্রতিরোধ সংগঠনগুলোর এসব হামলায় এ পর্যন্ত ৯ জন ইসরায়েলি নিহত হয়েছে।

 

আরো দেখুনঃ

প্রবাস টাইম সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ।
রিলেটেড নিউজ
© 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | এই ওয়েবসাইটের লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি
Technical Support By NooR IT