প্রবাস টাইম
বাংলাদেশরবিবার , ৮ মে ২০২২
  1. অন্যান্য
  2. অপরাধ
  3. আন্তর্জাতিক
  4. আমেরিকা
  5. ইউরোপ
  6. এশিয়া
  7. ওমান
  8. করোনা আপডেট
  9. কৃষি
  10. খেলাধুলা
  11. খোলা কলম
  12. চাকরি
  13. জাতীয়
  14. জানা অজানা
  15. জীবনের গল্প
 
আজকের সর্বশেষ সবখবর

প্রবাসী কামাল হোসেনের মরদেহ গ্রহণে নারাজ তার পরিবার

মিসবাহ রবিন
মে ৮, ২০২২ ৫:০৬ অপরাহ্ণ
Link Copied!

প্রবাসী কামাল হোসেনের মরদেহ গ্রহণে নারাজ তার পরিবার। জানাগেছে, উন্নত জীবনের আশায় পরিবারের মুখে হাঁসি ফোটানোর জন্য দক্ষিণ আফ্রিকায় আসেন কামাল হোসেন। এরপর মাদকের থাবায় মানসিক ভারসাম্য হারিয়ে ভবঘুরে হয়ে যান তিনি। কামালের বাড়ি ফেনী জেলার দাগনভূঁইয়া উপজেলায়। তিনি দক্ষিণ আফ্রিকার বাণিজ্যিক রাজধানী জোহানসবার্গের অদূরে স্প্রিং ও ব্র্যাকপান এলাকায় মার্কেট দোকানের ছাউনির নিচে থাকতেন আবার কখনো খোলা আকাশের নিচে রাত কাটাতেন।

LULU

গত ২৯ এপ্রিল (শুক্রবার) সড়ক দুর্ঘটনায় মারা যান কামাল হোসেন। এরপর ব্র্যাকপান বাংলাদেশি কমিউনিটি ও দক্ষিণ আফ্রিকায় বাংলাদেশি কমিউনিটি ব্লগ সাউথ বাংলার পক্ষ থেকে তার পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে মরদেহ কোন অবস্থায় গ্রহণ করবে না জানিয়ে দেয় কামালের পরিবার। পরিবারের সিদ্ধান্তে কামালের মরদের নিয়ে চিন্তা পড়ে যায় কমিউনিটি সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা।

 

সাউথ বাংলা ফেসবুক পেজের প্রধান অ্যাডমিন মোশাররফ হোসেন জানান, মাদকাসক্ত হয়ে ভবঘুরে হয়ে যাওয়ার কারণে কামাল হোসেনের কাছে দক্ষিণ আফ্রিকায় বৈধ কোনো কাগজপত্র ছিল না। এ অবস্থায় আমরা মৃত ব্যক্তির পরিবারের সম্মতিতে স্থানীয় পুলিশে এফিডেভিট করে গত মঙ্গলবার পবিত্র ঈদুল ফিতরের দিন দক্ষিণ আফ্রিকায় দাফন সম্পন্ন করি। 

PK Remittance

মোশাররফ আরও জানান, দক্ষিণ আফ্রিকার বিভিন্ন প্রান্তে শতাধিক বাংলাদেশি মাদকে আসক্ত হয়ে ভবঘুরে জীবন যাপন করছেন। দেশটিতে মাদকাসক্ত বাংলাদেশিরা প্রায় সময় বিভিন্ন ধরনের অপরাধে জড়িয়ে জেলে যাচ্ছে।  এছাড়াও গত কয়েক বছরে বেশ কয়েকজন বাংলাদেশি মাদকাসক্ত হয়ে এ দেশটিতে মারা গেছে।

 

আরো পড়ুন:

পবিত্র কোরআন শরীফ কীভাবে ছাপা হয়?

সবাই আমার স্ত্রীকে চোরের বউ বলে আমাকে জামিন দেন

পাসপোর্ট অফিসে কোটি টাকার ঘুষ বাণিজ্য, অনুসন্ধানে দুদক 

প্রবাসী বন্ডে কমছে মুনাফার হার

ওমানে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত জসিম

করোনা মোকাবিলায় ওমানের চেয়েও এগিয়ে বাংলাদেশ

আরো দেখুনঃ

প্রবাস টাইম সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ।