Probash Time
বাংলাদেশশনিবার , ২৩ জুলাই ২০২২
  1. অন্যান্য
  2. অপরাধ
  3. আন্তর্জাতিক
  4. আমেরিকা
  5. ইউরোপ
  6. এশিয়া
  7. ওমান
  8. করোনা আপডেট
  9. কৃষি
  10. খেলাধুলা
  11. খোলা কলম
  12. চাকরি
  13. জাতীয়
  14. জানা অজানা
  15. জীবনের গল্প
 
আজকের সর্বশেষ সবখবর

সৌদিতে সর্বহারা শ্রমিকদের আহাজারি

শহিদুল ইসলাম
জুলাই ২৩, ২০২২ ৫:০৬ অপরাহ্ণ
Link Copied!

না যেনে ফ্রি ভিসা নামক অবৈধ ভিসায় সৌদি যেয়ে মানবেতর জীবন পার করছেন শতাধিক বাংলাদেশি প্রবাসী। সর্বহারা এই প্রবাসী শ্রমিকদের আহাজারি ও আর্তনাদে ভারি হয়ে উঠছে আকাশ-বাতাস। একটু সুখের আশায় তারা সহায়-সম্বল বিক্রি করে ৪-৫ লাখ টাকা খরচ করে বৈধ কন্ট্রাক্ট ভিসা, বিএমইটি ছাড়পত্র, কাজের চুক্তিপত্র নিয়ে সৌদি আরবে পাড়ি জমান। বর্তমানে তারা জেদ্দার আজিজিয়া এলাকায় একটি ভবনে মানবেতর জীবনযাপন করছেন। 

জানাগেছে, জনশক্তি রফতানির সব নিয়মনীতি মেনে দালালরা কৌশলে হাজার হাজার ফ্রি ভিসাকে কন্ট্রাক্ট ভিসা বলে চালিয়ে দিলেও প্রবাসীদের কল্যাণে নিয়োজিত সংস্থাগুলোর নজরে আসছে না। প্রতিনিয়ত হাজার হাজার শ্রমিক প্রতারণার স্বীকার হয়ে সর্বস্ব হারিয়ে দেশে ফিরলেও টনক নড়ছে না রাষ্ট্রযন্ত্রের কর্তাব্যক্তিদের।

বাংলাদেশি দালালের খপ্পরে পড়ে কেউ দুই মাস, কেউ তিন মাস, আবার কেউ ছয় মাস খেয়ে না খেয়ে দিনাতিপাত করছেন। কোম্পানি তাদের কোনো কাজ দিচ্ছে না। বরং কোম্পানির সবাই এখন আত্মগোপনে। কেউই তাদের সন্ধান পাচ্ছে না। ভুক্তভোগীরা বলছেন, তারা প্রত্যেকেই ৪-৫ লাখ টাকা খরচ করে বাংলাদেশের বিভিন্ন ট্রাভেল এজেন্সির মাধ্যমে সৌদি আরব গেছেন।

safe steep

বাংলাদেশি শ্রমিকদের একটি বদ্ধ বাড়িতে রেখেছেন। শুধু তাই নয়, তারা কাজ চাইলে কয়েকজন মিশরীয় নাগরিক দিয়ে তাদের বেদম মারধর করার অভিযোগ করছে আটক শ্রমিকরা। ভুক্তভোগী বাংলাদেশি শ্রমিকরা জানান, এ বিষয়ে জেদ্দাস্থ বাংলাদেশ কনস্যুলেটের কনসাল জেনারেল এবং শ্রম কাউন্সিলর এম কাজী এমদাদুল ইসলামকে বিস্তারিত অবহিত করলে তারা তাৎক্ষণিক ঘটনাস্থলে একজন আইন সহকারী পাঠান এবং আটক শ্রমিকদের সহযোগিতা দেয়ার আশ্বাস দেন।

এদিকে প্রতারণা বন্ধে নেয়া হচ্ছে না প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ। তাই এ সুযোগে প্রবাসী শ্রমিকের রক্তচোষা দালাল চক্র দেশে এবং প্রবাসে গড়ে তুলেছে বিশাল সিন্ডিকেট। এ সিন্ডিকেট তিন ভাগে কাজ করছে বলে জানান কয়েকজন ভুক্তভোগী। একটি অংশ বাংলাদেশে ভিসা বিক্রির কাজে নিয়োজিত; আরেকটি সৌদি আরব থেকে ভিসা সংগ্রহ করা এবং অন্যটি সৌদিতে কাজের সন্ধানে থাকে।

যেসব বেসরকারি নিয়োগ সংস্থা বিদেশে কর্মী পাঠায়, তারা কর্মী খোঁজার ক্ষেত্রে মূলত স্থানীয় দালালদের ওপর নির্ভরশীল। এসব দালাল বিদেশ যেতে প্রকৃত যে খরচ হয়, তার চেয়ে অনেক বেশি অর্থ আদায় করে বিদেশ গমনেচ্ছুদের কাছ থেকে। এ বিষয়ে বাংলাদেশ সরকারের সহযোগিতা চেয়েছেন ভুক্তভোগী শ্রমিকরা।

আরো পড়ুন:

নতুন নতুন শ্রমবাজারে বাংলাদেশি কর্মীদের সুযোগ সৃষ্টি হচ্ছে: ইমরান আহমদ

ওমানের সালালায় ফের সড়ক দুর্ঘটনা, চালকদের সর্তক থাকার নির্দেশ

পাসপোর্ট সেবা প্রত্যাশীদের হয়রানি, মালয়েশিয়ায় ৫ দালাল আটক

গোপনে মক্কায় গেলেন ইসরাইলি সাংবাদিক

অতিরিক্ত পুলিশ সুপারের ঝুলন্ত ও কনস্টেবলের গুলিবিদ্ধ লাশ উদ্ধার

আরো দেখুনঃ

এই সম্পর্কিত আরো সংবাদ: