নিজ হাতে পুরো কোরআন লিখলেন ঢাবি শিক্ষার্থী

ডেস্ক নিউজ
আপডেটঃ জুন ২০, ২০২২ | ৮:১৮
ডেস্ক নিউজ
আপডেটঃ জুন ২০, ২০২২ | ৮:১৮
Link Copied!
নিজ হাতে পুরো কোরআন লিখলেন ঢাবি শিক্ষার্থী

শিক্ষাজীবনে কখনো মাদরাসায় পড়েননি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফলিত গণিত বিভাগের সদ্য সাবেক শিক্ষার্থী জারিন তাসনিম দিয়া। মহান আল্লাহর বাণীকে ভালোবেসে তিনিই কিনা হাতে লিখলেন পুরো কোরআন শরীফ! তাও আবার যেনতেন লেখা নয়, এত সুন্দর করে গুছিয়ে লিখেছেন যে, দেখে বোঝার উপায় নেই, কোরআন শরিফটি হাতে লেখা হয়েছে।

মহাগ্রন্থ আল কোরআনকে ভালোবেসে এ অসাধ্য সাধন করেছেন দিয়া। পাণ্ডুলিপি থেকে এরইমধ্যে তিনি পূর্ণাঙ্গ কোরআন বাঁধাইও করেছেন। দেশের ৫০০টি মডেল মসজিদে হাতে লেখা এ পবিত্র গ্রন্থ উপহার হিসেবে দিতে চান দিয়া। জানা যায়, করোনার প্রাদুর্ভাবে সবকিছু বন্ধ হয়ে গেলে একরকম ঘরবন্দী দিন কাটাচ্ছিলেন তিনি।

বিজ্ঞাপন

লম্বা অবসর কাজে লাগাতে পবিত্র আল কোরআন হাতে লিখতে শুরু করেন তিনি। দেড় বছর লেখার পর ৩০ পারার ১১৪টি সুরাই লিখে শেষ করেন তিনি। দিয়া শিক্ষাজীবনে কখনও মাদ্রাসায় পড়েননি; তবুও মহান আল্লাহ তায়ালার বাণীকে ভালোবেসে দিয়ার এমন কাজ অন্যরকম নজির হয়ে থাকবে।

দিয়া বলেন, আমি যেখানেই যেতাম আমার কোরআন, কাগজ ও কলম সাথে করে নিয়ে যেতাম। এক পর্যায়ে ভাল লাগা তৈরি হলো। বাংলাদেশের যতো মডেল মসজিদ ও মাদরাসা আছে সেগুলোতে বিনা মূল্যে আমার এই কোরআন আমি উপহার হিসেবে পাঠাবো।

বিজ্ঞাপন

হাতে লেখা কোরআন শরীফটি প্রথম দেখায় বোঝার উপায়ই নেই এটি ছাপা অক্ষর না, হাতের লেখা। দিয়া জানান, এই কাজে সবচেয়ে বেশি উৎসাহ দিয়েছেন তার বাবা-মা। এ প্রসঙ্গে দিয়া বলেন, আমি কোরআন পড়তে জানি একদিন কোরআন পড়ছি তখন আমার আব্বু আমাকে বললেন যেন তাকে আয়াতুল কুরছি লিখে দিই তিনি সেটি ঘরের সামনে টাঙিয়ে রাখবো। আমি যখন দেখে দেখে লিখলাম তখন বাবা বললেন যে, তোমার হাতের লেখা তো সুন্দর আছে, তুমি পুরো কোরআনই লিখতে পারো।

হাতে লেখা শেষ হলে ৩০ জন হাফেজের সহযোগিতায় সম্পাদনার কাজ করা হয়। পরে তা বাঁধাই করে রূপ দেয়া হয় পূর্ণাঙ্গ কোরআন শরিফে। এ প্রসঙ্গে দিয়া বলেন, প্রতিজন এক পারা করে দেখেছেন। তারা যে ভুলগুলো দেখালেন সেগুলো পরে বাসায় এসে মার্ক করে ঠিক করে নিয়েছি। প্রায় সাড়ে ১৪’শ বছর আগে মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) এর ওপর কোরআন নাজিল হলে এভাবেই হাতে লিখে রাখতেন সাহাবারা।

আরো পড়ুন:

মালয়েশিয়া সিন্ডিকেটে জড়িত মন্ত্রী সচিব!

সিলেটে ১২২ বছরের ইতিহাসের ভয়াবহ বন্যা

বিমানের এসি লাইট বন্ধ, অন্ধকার বিমানে আবদ্ধ প্রবাসীদের চরম ক্ষোভ

পাহারধসে সবাই মারা গেলেও আকস্মিকভাবে বেঁচে যান ছয় মাস বয়সী যমজ সন্তান

দেড় মাসের নববধূ ৪ মাসের অন্তঃসত্ত্বা!

আরো দেখুনঃ

শীর্ষ সংবাদ:
জি কে শামীমসহ ৮ জনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড কর্মস্থলে যাওয়ার পূর্বে প্রবাসী বাংলাদেশি মৃত্যু বিপুল উৎসাহ-উদ্দীপনায় জাতীয় দিবস উদযাপন করলো সৌদি আরব ঢাকায় আমিরাতের নতুন রাষ্ট্রদূত আব্দুল্লাহ আলহামুদি শিশু পর্নোগ্রাফির অভিযোগে বাংলাদেশি গ্রেফতার অবশেষে ফাঁস হলো মেসির বার্সা ছাড়ার রহস্য বিশ্বকাপে টিকিটের সাথে ‘হায়া কার্ড’ বাধ্যতামূলক করলো কাতার ওমানে চুরির অভিযোগে চার প্রবাসী গ্রেফতার সিরিয়া উপকূলে নৌকাডুবিতে নিহত ৭১ অভিবাসী মধ্যপ্রাচ্যের বাজারে সাড়া ব্যাপক ফেলছে বাংলাদেশি মাছ কুয়েতে প্রবাসীদের জন্য দুঃসংবাদ দুবাইতে মেশিনের সুইচ চাপলেই বিনামূল্যে মিলছে রুটি কোরআন প্রতিযোগিতায় ১১১ দেশের মধ্যে তৃতীয় বাংলাদেশের তাকরীম প্রবাসীদের পাসপোর্ট প্রাপ্তি সহজীকরণের দাবি জামালপুরে এক মেয়ে বিয়ে করলো আরেক মেয়েকে সিআইডি অভিযানের পর রেমিট্যান্সের প্রবাহ বৃদ্ধি পেয়েছে বিমানবন্দর থেকে সাফ জয়ী নারীদের লাগেজ ভেঙে আড়াই লাখ টাকা চুরি রহস্যময় গ্রাম, মানুষকে উধাও করে দেয় নিমিষেই নতুন রোগ, বিমানবন্দর থেকে ফেরত যাচ্ছেন অনেক প্রবাসী ওমানে গাড়ী বীমার খরচ বাড়লো ১৫ শতাংশ