সোমবার, ৩০শে জানুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ

মধ্যস্বত্বভোগীদের হাতে প্রবাসীদের অর্থ, রেমিট্যান্স থেকে বঞ্চিত দেশ

ডেস্ক নিউজ
আপডেটঃ আগস্ট ৬, ২০২২ | ৬:১৫
ডেস্ক নিউজ
আপডেটঃ আগস্ট ৬, ২০২২ | ৬:১৫
Link Copied!
অবশেষে বাড়তে শুরু করেছে রেমিট্যান্স

প্রবাসীদের পাঠানো রেমিট্যান্সের অর্থ আটকে যাচ্ছে কিছু অসাধু মানি এক্সচেঞ্জ বা হুন্ডিবাজদের হাতে। ফলে সময়মতো দেশে আসছে না অর্থ। এতে দেশ বঞ্চিত হচ্ছে বৈদেশিক মুদ্রা থেকে। এ খাতে প্রায় ১৫০ কোটি ডলারের রেমিট্যান্স বিদেশে  পরে আছে। এগুলো দেশে আনার জন্য ব্যাংকগুলোকে নানান উদ্যোগ  নিয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

প্রবাসীদের পাঠানো রেমিট্যান্সে থাবা বসিয়েছে মধ্যস্বত্বভোগীরা। দেশি-বিদেশি কিছু এক্সচেঞ্জ হাউস প্রবাসীদের বৈদেশিক মুদ্রা অন্যত্র বিনিয়োগ করে মুনাফা নিচ্ছে।

প্রচলিত নিয়ম অনুযায়ী, রেমিট্যান্স এক্সচেঞ্জ হাউসে জমার ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ওই দেশের ব্যাংকে নষ্ট্রো অ্যাকাউন্টে জমা করবে। এতে অর্থ জমা হলেই তা বাংলাদেশের সংশ্লিষ্ট ব্যাংক পেয়ে যাবে।

বিজ্ঞাপন

এরপর বাংলাদেশের ব্যাংক প্রবাসীর হিসাবে তা টাকায় স্থানান্তর করে। কিন্তু এক্সচেঞ্জ হাউসগুলো তা না করে, রেমিট্যান্সের অর্থ বিভিন্ন খাতে বিনিয়োগ করে। এ খাতে প্রায় ১৫০ কোটি ডলারের রেমিট্যান্স বিদেশে আটকে রয়েছে।

অর্থমন্ত্রী বলেছেন,গত অর্থবছরে দেশে যে পরিমানের রেমিট্যান্সে এসেছে তার  ৪১ শতাংশই আসছে হুন্ডিতে। কিন্তু হুন্ডিতে আসা সেই রেমিট্যান্স থেকে বঞ্চিত হয়েছে দেশ।

এছাড়া বিদেশি এক্সচেঞ্জ হাউসের সঙ্গেও দেশের ব্যাংকগুলো রেমিট্যান্স পাঠানোর চুক্তি করে। এ সুযোগে বৈধ এক্সচেঞ্জ হাউজের পাশাপাশি গড়ে উঠে অনেক বেআইনি হাউস।

বিজ্ঞাপন

মোট রেমিট্যান্সের যুক্তরাষ্ট্র থেকে ১৬ শতাংশ, কুয়েত থেকে ৮ শতাংশ, ওমান থেকে ৪ শতাংশ, মালয়েশিয়া থেকে ৫ শতাংশ, সংযুক্ত আরব আমিরাত থেকে ৯ শতাংশ, অন্যান্য দেশ থেকে ২৭ শতাংশ আসে।

ওইসব দেশেও হুন্ডি চক্র সক্রিয়। বিশেষ করে মালয়েশিয়া ও সিঙ্গাপুরে বাংলাদেশি হুন্ডিবাজদের তৎপরা বেশি। যে কারণে মালয়েশিয়া থেকে এখন রেমিট্যান্স বেশি কমেছে।

 

কেন্দ্রীয় ব্যাংক সূত্র জানায়, বিদেশে যেখানে বাংলাদেশিরা রয়েছে সেখানের আনাচে-কানাচে বেআইনিভাবে অনেক এক্সচেঞ্জ হাউস গড়ে উঠেছে। সেগুলোর মাধ্যমে হুন্ডিতে অনেকেই রেমিট্যান্স পাঠাচ্ছেন। এদের অনেকেই প্রতারিত হচ্ছেন

সংশ্লিষ্ট আরও খবর:

শীর্ষ সংবাদ:
ঢাকায় নামতে পারছেনা ওমানের ফ্লাইট! ৪ হাজার ৩০০ বছর পর উন্মোচন হলো সোনায় মোড়ানো মমি যেসব কৌশলে প্রবাসীদের সর্বস্বান্ত করে ছিনতাইকারীরা ওমানে আরও বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা, ঝুঁকি না নেওয়ার আহ্বান ডেনমার্কে কোরআন পোড়ানোর ঘটনায় তীব্র নিন্দা জানালো ওমান বিয়ের ১৫ দিনের মাথায় না ফেরার দেশে প্রবাসী হজযাত্রীদের বিমানভাড়া ৭০ হাজার টাকা বৃদ্ধির প্রস্তাব জানুয়ারিতেও ইতিবাচক ধারায় প্রবাসী আয় সড়কে নিহত প্রবাসীর লাশের অপেক্ষায় স্বজনেরা যেই দেশে শৈত্যপ্রবাহ বিরল, সেই ওমানেই বিরল তুষারপাত বিমানের মাস্কাটগামী ফ্লাইট ঢাকায় জরুরী অবতরণ আজারবাইজান দূতাবাসে হামলা, তীব্র নিন্দা জানালো ওমান কয়েক মিনিটের ব্যবধানে ৩ বিমান বিধ্বস্ত অবৈধ প্রবাসীদের বৈধতা কার্যক্রম শুরু হুন্ডির টাকাসহ চোরাকারবারি আটক প্রবাসীকে পিটিয়ে আহতের অভিযোগে কুয়েতি গ্রেপ্তার মাদকের ‘রাজধানী’ হয়ে উঠছে সৌদি আরব আমিরাতে প্রবল বর্ষণে জনজীবনে দুর্ভোগ, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা দালালচক্রের ব্যাপারে সবাইকে কাজ করার আহ্বান প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রীর কুয়েতে জমে উঠেছে সাপ্তাহিক হাঁস, মুরগি ও কবুতরের হাট