বৃহস্পতিবার, ২রা ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ

সব আইন শুধু প্রবাসীদের জন্য!

ডেস্ক রিপোর্ট
আপডেটঃ নভেম্বর ২২, ২০২২ | ১২:২৮
ডেস্ক রিপোর্ট
আপডেটঃ নভেম্বর ২২, ২০২২ | ১২:২৮
Link Copied!
সব আইন শুধু প্রবাসীদের জন্য!

‘বিদেশে বাড়ি করতে টাকা নিয়ে গেছে হুন্ডি করে। টাকা তো আর উড়ে যেতে পারে না। ব্যাংকিং চ্যানেলে দিয়েও নিতে পারেনি, তাহলে কীভাবে গেলো! হুন্ডি করে টাকা নিয়ে গেছে, বিদেশে বাড়ি করেছে। সেই বাড়ি বৈধ করতে পারবে দেশে ৭ শতাংশ ট্যাক্স দিলে। অথচ বৈধ আয় করলে ২৫ শতাংশ ট্যাক্স দিতে হয় ‘শুধু প্রবাসীদের দুঃখের কথা বললে হবে না। সমাজে একটি ন্যায়বিচার থাকতে হবে। যারা ভালো আছে তাদের স্যাক্রিফাইস করতে বলবেন, আর যারা টাকা হুন্ডি করে নিয়ে গেছে, তাদের প্রটেকশন দেবেন, তাহলে তো কিছুই থাকবে না।’ বল্লেন প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান বিষয়ক সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি আনিসুল ইসলাম মাহমুদ।

 

রবিবার (২০ নভেম্বর) দুপুরে রাজধানীর সোনারগাঁ হোটেলে ‘সেফ স্টেপ অ্যাপ’ উদ্বোধন অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।
আনিসুল ইসলাম বলেন, ‘আমরা আইএমএফের কাছে গেছি সাড়ে ৪ বিলিয়ন ডলারের জন্য। ২০ বিলিয়ন ডলার থেকে প্রবাসী আয় ২৪ বিলিয়ন ডলারে যেতে লেগেছে ২ বছর। দুই বছরে চার বিলিয়ন ডলার বেড়েছে। আজকে কোনও সমস্যাই হতো না। গত বছরের আগের বছরে ৮ লাখ কর্মী বিদেশ গেছে, আর গত বছর গেছে ১০ লাখ। ৮ লাখ কর্মী যখন গেছে, তখন আমাদের রেমিট্যান্স অনেক বেশি ছিল। যেটা ১০ লাখ যাওয়ার পর হয়নি। এমন কেন হচ্ছে। কয়েকটি কারণে এমন হচ্ছে।’

বিজ্ঞাপন

 

তিনি আরও বলেন, ‘খোলা বাজারের সঙ্গে ব্যাংকের বৈদেশিক মুদ্রার এক্সচেঞ্জ রেটে অনেক পার্থক্য। এখানে বিশাল পার্থক্য। আপনি ডিপ্রাইভ করছেন একটা গরিব মানুষকে। জমি বিক্রি করে বিদেশে গিয়ে তারা কিন্তু স্বস্তিতে থাকে না। সেখানে তাকে অনেক বেশি কষ্ট করতে হয়। পুরো পরিবারের খরচ তাকে বহন করতে হয়। সে টাকা জমিয়ে একসময় দেশে গিয়ে ব্যবসা করবে এই চিন্তায় আছে। সেখানে আমরা তাকে বলছি, প্রতি ডলারে ১০-১২ টাকা স্যাক্রিফাইস করতে। একজন ব্যাংকার আমার সামনে বলেছেন, দেশপ্রেম গরিবের জন্য, ধনীর জন্য না। তাদেরই স্যাক্রিফাইস করতে হবে।’

 

বিজ্ঞাপন

আনিসুল ইসলাম বলেন, ‘২০০৮ সালে বিশ্বমন্দার সময় কিন্তু বাংলাদেশে সমস্যা হয়নি। কারণ, আমরা রেমিট্যান্স ধরে রাখতে পেরেছিলাম। করোনার সময় অনেকেই বলেছিল যে অর্থনীতি ক্ষতিগ্রস্ত হবে। সেটিও হয়নি। করোনার মধ্যে বিদেশে কর্মী যাওয়া কমে গেলেও রেমিট্যান্স কমেনি। আজকে বিশ্ববাজারে সবকিছুর দাম বেড়েছে এবং আমাদের আমদানিও অনেক বেশি ছিল। ছয় মাস আগেও প্রধানমন্ত্রী ভেবেছিলেন যে রিজার্ভ ৪০ থেকে ৫০ বিলিয়ন ডলারে যাবে। কিন্তু তেমনটি হয়নি।’

 

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন, অভিবাসন ও উন্নয়ন বিষয়ক সংসদীয় ককাসের মহাসচিব মাহজাবিন খালেদ, সংসদ সদস্য অ্যারোমা দত্ত, বিএমইটি মহাপরিচালক শহীদুল আলম, বোয়েসেল ব্যবস্থাপনা পরিচালক ড. মল্লিক আনোয়ার হোসেন, রামরুর নির্বাহী পরিচালক অধ্যাপক সি আর আবরার, উইনরক ইন্টারন্যাশনালের কান্ট্রি রিপ্রেজেনটেটিভ ড. মেজবাহুল আলম প্রমুখ।


আরো পড়ুন:

ওমানের জাতীয় দিবসের বাকি ২ দিন, উদযাপনে

ওমানে বিশ্বকাপের ছোঁয়া, মাস্কাটে পৌঁছেছে জার্মান

কাতার বিশ্বকাপে সেবা দিবে ৮ হাজার বাংলাদেশি

প্রবাসী কর্মীকে চাকরীচ্যুত করায় পৌনে দুই লাখ

ওমানের আল খয়েরে পুলিশের কঠোর অভিযান

আরো দেখুনঃ

সংশ্লিষ্ট আরও খবর:

শীর্ষ সংবাদ:
ওমানের বিমানবন্দরে ফ্লাইট বাড়লো প্রায় আড়াই গুন প্রযুক্তিতে আরেক ধাপ এগুলো সৌদি, লাগছেনা ইকামার প্রিন্ট মাস্কাট নাইটসে রাইড দুর্ঘটনায় সাত শিশু আহত ওমানের অর্ধেক মামলায় জড়িত প্রবাসীরা দৈনিক ৫ ঘণ্টা বন্ধ ঢাকার ফ্লাইট চলাচল ওমানে নতুন শ্রম আইন, সুফল পাবেন প্রবাসীরা ওমানে সময়মত বেতন না দিলে মালিকের জরিমানা প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করলেন ওমান সহ ৭ দেশের রাষ্ট্রদূত বিনামূল্যে ওমরাহ ভিসা দিচ্ছে সৌদি আরব ঢাকার পর এবার ওমানের মাস্কাটেও চালু হচ্ছে মেট্রো রেল গতি ফিরছে শ্রমবাজারে, নতুন কর্মী যাওয়া বেড়েছে প্রায় তিনগুণ এসি লাগাতে গিয়ে গুরুতর আহত প্রবাসী সারাবছর ধরে ভোটার হতে পারবেন প্রবাসীরা ওমানির অভিনব উদ্যোগ, ২০০ কিলোমিটার রাস্তা কমে হয়ে গেল ১০ কিমি কাতার বিশ্বকাপে নিহত বাংলাদেশিদের তালিকা চেয়েছে হাইকোর্ট নতুন ভিসা নিয়ে বাংলাদেশ থেকে ওমান যাওয়ার হিড়িক ২৭ দিনে রেমিট্যান্স এলো ১৬৭ কোটি ডলার ঢাকায় নামতে পারছেনা ওমানের ফ্লাইট! ৪ হাজার ৩০০ বছর পর উন্মোচন হলো সোনায় মোড়ানো মমি যেসব কৌশলে প্রবাসীদের সর্বস্বান্ত করে ছিনতাইকারীরা