ওমানে যুগান্তকারী আইন, স্পন্সর ছাড়াই ব্যবসা করতে পারবে প্রবাসীরা

আগস্ট ৯, ২০২২ | ১২:৫০ অপরাহ্ণ
ডেস্ক নিউজ , প্রবাস টাইম

ওমানের ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানে শতভাগ বিদেশি মালিকানা এখন আর স্বপ্ন নয়, বাস্তব। চলতি বছরে ওমান সরকারের নতুন বিদেশি মুলধন বিনিয়োগ আইনের আওতায় এ নীতিগত সিদ্ধান্ত এনেছে। বিদেশি বিনিয়োগকারীরা কোনো ধরনের ওমানি পার্টনার বা স্পন্সর ছাড়াই শতভাগ মালিকানায় ব্যবসা পরিচালনা করতে পারবে। যা এর আগে শুধুই স্বপ্ন ছিলো। যেসব বিদেশীরা ওমানে গিয়ে বছরের পর বছর ওমানি স্পন্সর এর সাথে ব্যবসা করছেন, তাঁদের জন্য এক যুগান্তকারী উদ্যোগ নিয়েছে দেশটির সরকার। বিদেশি বিনিয়োগকারীরা কোনো ধরনের ওমানি পার্টনার বা স্পন্সর ছাড়াই শতভাগ মালিকানায় ব্যবসা পরিচালনা করতে পারবে।  দেশটির বাণিজ্য ও শিল্প মন্ত্রণালয় আগের কঠোর অবস্থান থেকে সরে এসে নতুন আইনে শেয়ার মূলধনের জন্য কোন নূন্যতম মাত্রা বা সংখ্যা বাধ্যতামূলক করা হয়নি। এতে বিদেশি বা প্রবাসীদের ওমানে বিনিয়োগ বা ব্যবসা-বানিজ্য অনেক সহজ হবে। আর এই ইনভেস্টর লাইসেন্স বানাতে সহযোগিতা করছে শেখ ফাহাদ বিজনেস ইনভেস্টমেন্ট সলিউশন। প্রবাস টাইমকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান শেখ ফাহাদ জানালেন এর বিস্তারিত তথ্য।   দেশটির পূর্বের আইন অনুযায়ী, কেউ ওমানে বিনিয়োগ করতে চাইলে তাকে কমপক্ষে ১ লাখ ৫০ হাজার ওমানি রিয়াল বিনিয়োগ করতে হত। যা বাংলাদেশি টাকায় প্রায় ৩ কোটি ৩০ লাখ টাকার সমমান। এখন সল্প টাকা বিনিয়োগ করেই শতভাগ মালিকানায় ব্যবসা পরিচালনা করতে পারবে প্রবাসীরা। এ যুগান্তকারী উদ্দ্যেগ  প্রবাসী বাংলাদেশি ব্যবসায়ীদের জন্য নতুন সম্ভাবনা হবে বলে মনে করছেন ব্যবসায়ীরা।  তবে দেশটির আইন অনুযায়ী বেশকিছু ব্যবসায় বিদেশিদের উপর নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। যারমধ্যে, ফটোকপি, টেইলারিং, লন্ড্রি, যানবাহন, মোটরগাড়ি মেরামত, ট্যাক্সি সেবা, ফিশিং ও পুনর্বাসন ঘরসহ মোট ৩৭ খাতে শতভাগ মালিকানা হতে পারবে না বিদেশি কোন নাগরিক।  তবে ব্যান্ড লিস্টে যে ৩৭ খাত আছে সেগুলোর মধ্যে প্রতিরক্ষা, তেল-গ্যাস এবং রেস্তোঁরা কেন্দ্রিক ব্যবসাগুলোকে রাখা হয়নি। যদিও পূর্বে এসব খাতগুলোতে ওমানি মালিকানার শর্ত ছিল এখন তা শিথিল হয়েছে। যা প্রবাসীদের জন্য বড় একটা সুযোগ বয়ে আনবে। জনশক্তি বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, বাধ্যতামূলক আরবি স্পনসরদের নিয়ে ব্যবসা পরিচালনা করতে গিয়ে বাংলাদেশিরা নানান সমস্যার সম্মুখীন হতেন। কোনো ধরণের বিনিয়োগ ছাড়াই লাভের একটি অংশও নিয়ে নেন তারা। তবে এখন থেকে আর আগের মতো সেই সমস্যা থাকবেনা। একইসাথে ব্যবসা বাণিজ্যে বেশ এগিয়ে যাবেন প্রবাসীরা।    বিস্তারিত দেখুন ভিডিওতে https://www.youtube.com/watch?v=dIDxlmu0WFo