নতুন অভিবাসী আইনে বাড়ছে কারাদণ্ড, কমছে জরিমানা

আগস্ট ১৭, ২০২২ | ২:২৪ অপরাহ্ণ
ডেস্ক নিউজ , প্রবাস টাইম

বিদেশে কর্মসংস্থান সম্পর্কিত চাহিদাপত্র, ভিসা বা ওয়ার্ক পারমিটে অবৈধ পন্থাগ্রহণ বা ক্রয়-বিক্রয়ে জড়িতদের সর্বনিম্ন ২ বছর এবং সর্বোচ্চ ৭ বছরের কারাদণ্ডে দণ্ডিত করার নতুন বিধান আসছে। বিদ্যমান আইনে সর্বনিম্ন কারাদণ্ডের উল্লেখ ছিল না। ফলে অনেকে অপরাধ করেও খুব সহজে পার পেয়ে যেত। আইনটি পাস হলে বিদেশে অভিবাসন নিয়ে কেউ জাল-জালিয়াতি করলেই তাকে কমপক্ষে ২ বছরের সাজা ভোগ করতে হবে। সংশোধিত আইনে একই অপরাধের জন্য বর্তমান আইনে থাকা জরিমানার পরিমাণ সর্বনিম্ন ৩ লাখ টাকা থেকে কমিয়ে ২ লাখ টাকা করা হচ্ছে। বৈদেশিক কর্মসংস্থান ও অভিবাসী আইন, ২০১৩-এ এসব সংশোধনী আনা হচ্ছে। মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

সূত্র জানায়, আইনটি বৈদেশিক কর্মসংস্থান ও অভিবাসী আইন, ২০২২ (সংশোধিত) নামে অভিহিত হবে। আইনের খসড়া ইতোমধ্যে চূড়ান্ত করে তা পরীক্ষা-নিরীক্ষার জন্য মন্ত্রিপরিষদ বিভাগে পাঠিয়েছে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়। পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষে ফেরত পাঠানোর পর সংশোধিত আইনটি অনুমোদনের জন্য মন্ত্রিসভার বৈঠকে তোলা হবে। খুব শিগগিরই সংশোধিত আইনটি মন্ত্রিসভার বৈঠকে তোলা হবে বলে বিশস্ত সূত্রে জানা গেছে। খসড়া অনুযায়ী বিদ্যমান আইনের ৩৩ ধরার আংশিক সংশোধন করে তাতে বলা হয়েছে, কোনো ব্যক্তি বা রিক্রুটিং এজেন্ট বৈদেশিক কর্মসংস্থানের উদ্দেশ্যে নিয়োগকারী বা বিদেশ থেকে চাহিদাপত্র, ভিসা বা কার্যানুমতিপত্র সংগ্রহে অবৈধ পন্থা গ্রহণ করলে এবং বাংলাদেশের অভ্যন্তরে উহা ক্রয়-বিক্রয় করলে তা অপরাধ হিসেবে গণ্য হবে। এমন অপরাধের জন্য কমপক্ষে ২ বছর থেকে সর্বোচ্চ ৭ বছর পর্যন্ত সশ্রম কারাদ- এবং কমপক্ষে ২ লাখ টাকা জরিমানা গুনতে হবে। ধারাটির পক্ষে যুক্তি তুলে ধরে বলা হয়েছে, বিদ্যমান আইনে অবৈধপন্থা গ্রহণের জন্য সর্বোচ্চ ৭ বছর সশ্রম কারাদ-ের উল্লেখ থাকলেও সর্বনিম্ন কোনো দ-ের উল্লেখ ছিল না। সংশোধনীর ফলে অবৈধ পন্থা গ্রহণকারী ব্যক্তি কোনোভাবেই কারাদণ্ড ভোগ এড়াতে পারবেন না।

সর্বনিম্ন কারাদণ্ডের সময় উল্লেখ করা না হলে অপরাধের তুলনায় কারাদণ্ডের পরিমাণ খুবই কম হওয়ার সুযোগ থাকে। অর্থাৎ শুধুমাত্র সর্বোচ্চ ৭ বছর পর্যন্ত কারাদণ্ডের উল্লেখ থাকলে অপরাধের জন্য কাউকে মাত্র ৭ দিন বা ১৫ দিন কারাদণ্ড দেওয়া হলেও কোনো সমস্যা ছিল না। কিন্তু সংশোধিত আইনে সর্বনিম্ন কারাদণ্ডের সুস্পষ্ট উল্লেখ থাকায় সে সুযোগ আর থাকবে না। এতে করে বিদেশে কর্মসংস্থান নিয়ে কাজ করা ব্যক্তিরা জাল-জালিয়াতির বিষয়ে সতর্ক হবে বলে মনে করছে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়। এ ছাড়া সর্বনিম্ন জরিমানার পরিমাণ ৩ লাখ টাকা থেকে কমিয়ে ২ লাখ টাকা করার বিষয়ে বলা হয়েছে, কমপক্ষে ২ বছর কারাদ- নির্দিষ্ট করার কারণে সর্বনিম্ন জরিমানার পরিমাণ কমানো হয়েছে।

খসড়ায় বলা হয়েছে, মিথ্যা তথ্য অথবা প্রতারণার মাধ্যমে লাইসেন্স গ্রহণ, লাইসেন্সের শর্ত ভঙ্গ কিংবা যথাসময়ে লাইসেন্স নবায়ন না করা, আচরণবিধির কোনো বিধান লঙ্ঘন, লাইসেন্সপ্রাপ্ত ব্যক্তি কোনো ফৌজদারি অপরাধে দণ্ডিত হলে, বাংলাদেশের স্বার্থের পরিপন্থী কোনো উদ্দেশ্যে অভিবাসীকর্মী নিয়োগ বা নির্বাচন করলে এবং কোম্পানি, সংস্থা, অংশীদার কারবার বা আইনগত সত্তার ক্ষেত্রে এর অবসায়ন হলে রিক্রুটিং এজেন্টের লাইসেন্স স্থগিত বা বাতিল বা কমপক্ষে ৫০ হাজার টাকা থেকে সর্বোচ্চ ২ লাখ টাকা জরিমানার বিধান রাখা হচ্ছে সংশোধনী আইনে।

আইনের অপরাধ, দণ্ড ও বিচার অধ্যায়ে বলা হয়েছে, প্রতারণামূলকভাবে বেশি বেতন-ভাতা ও সুযোগসুবিধার মিথ্যা আশ্বাস দিলে সর্বোচ্চ ৫ বছর কারাদ- এবং কমপক্ষে ১ লাখ টাকা জরিমানা করার এখতিয়ার পাবে আদালত। কোনো ব্যক্তি বা রিক্রুটিং এজেন্ট সরকার বা ব্যুরোর পূর্বানুমোদন ছাড়া বৈদেশিক কর্মে নিয়োগের উদ্দেশ্যে বা অভিবাসনবিষয়ক কোনো বিজ্ঞাপন প্রকাশ বা প্রচার করলে তা অপরাধ হিসেবে গণ্য হবে। এমন অপরাধের জন্য সর্বোচ্চ ১ বছর কারাদ- এবং কমপক্ষে ৫০ হাজার টাকার জরিমানার বিধান থাকছে। বৈদেশিক কর্মসংস্থান ও অভিবাসী আইন অনুযায়ী সব অপরাধের বিচার প্রথম শ্রেণির জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট অথবা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেটের আদালতে হবে।

কর্মকর্তারা জানান, দেশের সহজ-সরল অনেক মানুষ দালাল বা রিক্রুটিং এজেন্টের মাধ্যমে প্রতিনিয়ত বিদেশে পাড়ি জমাচ্ছেন। এদের কেউ কেউ প্রতারণার শিকার হচ্ছেন। মোটা অঙ্কের টাকা খরচ করে বিদেশে গিয়ে কাক্সিক্ষত চাকরি পান না তারা। রিক্রুটিং এজেন্সিগুলো বিদেশগামী মানুষের সরলতার সুযোগ নিয়ে প্রতিনিয়ত প্রতারণা করছে। এ জন্য বৈদেশিক কর্মসংস্থান ও অভিবাসী আইনটি আরও যুগোপযোগী করে প্রবাসীদের স্বার্থরক্ষার দিকে নজর দিতে চায় সরকার।

আরো পড়ুন: কুয়েতে চলছে কঠোর অভিযান, তিন শতাধিক প্রবাসী গ্রেফতার সৌদিতে শ্রম আইন সংস্কার, সুবিধা পাবে নারী শ্রমিকেরা শারজায় অনুষ্ঠিত হচ্ছে তিন দিনব্যাপী প্রবাসী উৎসব বিমানবন্দরে কাটা লাগেজ নিয়ে বিড়ম্বনায় যাত্রীরা ১৪০০ কোটি টাকা পাচারের ‘মূল হোতা’ গ্রেফতার আরো দেখুনঃ https://www.youtube.com/watch?v=kobm6aMUGH4&t=1s